মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
Welcome To Our Website...
শিরোনাম :
আসাদুজ্জামান আসাদের যত ‘অপকর্ম’ শ্রীপুরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাবেক ছাত্র নেতা মিজানুর রহমান মাগুরাবাসিকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কাজী রফিকুল ইসলাম মাগুরাবাসিকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মাগুরা জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আলী আহম্মদ পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মাগুরা জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক সাকিব পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শরিয়ত উল্লাহ বঙ্গবন্ধু ল’টেম্পল কলেজের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল প্রাথমিক শিক্ষকদের অনলাইন বদলি আবেদন শুরু শনিবার চট্টগ্রামে ১০ জুয়াড়ি গ্রেফতার

অটোচালক থেকে মেয়র! শপথ নিতে এলেন অটো চালিয়েই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৯ মার্চ, ২০২২
  • ৪৮৬ বার পঠিত

অটোচালক থেকে তামিলনাড়ুর থাঞ্জাভুর জেলার কুম্বাকোনাম পৌরসভার মেয়র হলেন কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ানো কে সরবানন। তার জীবন কাহিনী হার মানাবে সিনেমার গল্পকেও।

আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই দশক ধরে অটোচালক হিসেবে জীবিকা নির্বাহ করেন কে সরবানন। সেই সরবাননই কুম্বাকোনাম পৌরসভার প্রথম মেয়র হিসাবে নিযুক্ত হলেন। খুব অল্প বয়সে মা-বাবাকে হারান তিনি। সরবানন বেড়ে ওঠেন দাদা-দাদির কাছে।

তামিলনাড়ুর থুক্কামপালায়মে একটি ভাড়া বাড়িতে স্ত্রী এবং তিন সন্তানসহ বসবাস করেন ৪২ বছর বয়সী সরবানন।
স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে ভালই সংসার চলছিল। কিন্তু বাধ সাধল করোনা। করোনায় তার আয় অনেকটাই কমে যায়। সঞ্চয় যা ছিল তাও প্রায় ফুঁড়িয়ে যায়।
সারা দিনে ২০০ টাকা আয় করাও দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছিল। এই চরম আর্থিক অনটনের মুখে সরবাননের পাশে এসে দাঁড়িয়েছিল প্রতিবেশীরা। খাদ্য এবং অর্থ সাহায্য করেন তারা।

কিন্তু কেউই ভাবেননি যে এই দিন এনে দিন খাওয়া সদাহাস্য মানুষটি এক দিন কুম্বাকোনাম শহর পৌরসভার মেয়র হবেন। কুম্বাকোনম আগে পৌরসভা ছিল না। সম্প্রতি কুম্বাকোনম শহরকে নতুন পৌরসভা হিসেবে ঘোষণা করে প্রশাসন।

ভারতের অন্যতম এই মন্দির শহরের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী হন সরবানন। মোট দুই হাজার একশো ভোটের মধ্যে ৯৬৪ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন তিনি।

সত্যি বলতে এই জয় তিনি নিজেও আশা করেননি। বরং আরও বেশ কয়েক জন হেভিওয়েট প্রার্থী ছিল যাদের জেতার সুযোগ আরও ভালো ছিল।
জেতার পর তাকে মেয়র পদে বসার কথা বলা হলে তিনি দলের উচ্চ নেতৃত্বকে জানান যে তিনি এক জন অটোচালক, এবং তার মেয়র হওয়ার যোগ্যতা নেই। কিন্তু নেতৃত্ব তাকে বলেন যে তিনিই এই পদের জন্য যোগ্য ব্যক্তি। মেয়র হিসেবে শপথ গ্রহণের দিন নিজের অটো চালিয়েই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন সরবানন।

সরবানন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, মেয়র হওয়ার পর তার প্রধান লক্ষ্য, ভূগর্ভস্থ নিকাশি ব্যবস্থার কাজ সম্পূর্ণ করা।
এ ছাড়াও মানুষের সুবিধার্থে খারাপ রাস্তা মেরামত, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ এবং রাস্তায় পর্যাপ্ত আলোসহ মৌলিক সুবিধাগুলো মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার দিকে তার নজর থাকবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs