মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৯:২৭ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
Welcome To Our Website...

চবিতে র‍্যাগিং বারবার, রাতজুড়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ১৯৯ বার পঠিত

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কাগজেকলমে র‍্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে হুঙ্কার ছাড়লেও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বারেবারেই ঘটছে র‍্যাগিংয়ের ঘটনা। এ থেকে হচ্ছে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষও। সর্বশেষ র‍্যাগিংয়ের জের ধরেই ঘটেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শাখা ছাত্রলীগের সিক্সটি নাইন ও এপিটাফ গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা। এতে দুই ক্যান্টিন বয়সহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। এ সময় বন ও পরিবেশবিদ্যা ইনস্টিটিউটের প্রশাসনিক ভবন ও সূর্যসেন হলে ভাঙচুর চালানো হয়। ভেঙে দেওয়া হয় একটি মোটরবাইকও।

বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টারদা সূর্যসেন হলে এ ঘটনার সূত্রপাত হয়। পরে এর রেশ চলে মধ্যরাত পর্যন্ত অন্য হলেও।

বুধবার দুপুরে সিক্সটি নাইন গ্রুপের কর্মী প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী বায়েজিদ মাস্টারদা সূর্যসেন হলের ক্যানটিনে খেতে যান। তার সঙ্গে ছিলেন দুই নারী শিক্ষার্থীও। এ সময় গ্রুপের কর্মীরা তাদের র‍্যাগ দেয়। পরে বিষয়টি সিক্সটি নাইন গ্রুপের নেতাদের জানানোর পর রাতে সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে।

সিক্সটি নাইন গ্রুপের কর্মীদের দাবি, বিকেলে তাদের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের এক কর্মীকে র‍্যাগ দেয় এপিটাফ গ্রুপের কর্মীরা। এ ঘটনা মীমাংসা করতে গেলে এপিটাফের কর্মীরা তাদের ওপর হামলা করলে তারা প্রতিরোধ করে। যদিও র‍্যাগিংয়ের কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিক্সটি নাইন গ্রুপের নেতা ইকবাল হোসেন টিপু  বলেন, এক জুনিয়রকে র‍্যাগ দেওয়া নিয়ে সিক্সটি নাইন ও এপিটাফের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে। আমরা মীমাংসার চেষ্টা করছি।

সিক্সটি নাইন ও এপিটাফ— বগিভিত্তিক এই দুই গ্রুপই চট্টগ্রাম সিটির সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূইয়া বলেন, এক শিক্ষার্থীকে র‍্যাগ দেয়া হয়েছে অভিযোগ করে সিক্সটি নাইন গ্রুপের কর্মীরা সূর্য সেন হলে এসে গন্ডগোল করেছে। তারা প্রশাসনিক ভবন ও হলে ভাঙচুর চালিয়েছে। প্রাথমিক অনুসন্ধানে আমরা র‍্যাগিংয়ের কোন সত্যতা পাইনি। এ ঘটনায় দুজন ক্যান্টিন বয়সহ পাঁচজন আহত হয়েছে। আমরা ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।

এর আগে গত বছরের ২৯ অক্টোবর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) স্নাতক প্রথম বর্ষের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের দুই ভর্তিচ্ছুকে র‌্যাগ দেওয়ার নামে পিটিয়ে জখম করে চবি ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক সংগঠন সিক্সটি নাইনের কর্মীরা। মারধরের শিকার দুই শিক্ষার্থী আরাফাত হোসেন ও আকতার হোসেনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেল স্টেশনে র‌্যাগ দিচ্ছিলেন ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা-কর্মী। এ সময় এক শিক্ষার্থী কিছুটা প্রতিবাদস্বরূপ কথা বললে তাদের মারধর শুরু করে ছাত্রলীগের ৭-৮ জন নেতা-কর্মী।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Deshjog TV