শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৪৮ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
Welcome To Our Website...

নৌকার পক্ষে ফারমিন গ্রুপের চেয়ারম্যান ও এমডি’র ব্যতিক্রমধর্মী প্রচারণা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৩ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৩৩ বার পঠিত

আগামী ৭ জানুয়ারি পোশাক শ্রমিকদের ভোটদানে উৎসাহ প্রদানে ও নৌকা মার্কার বিজয় নিশ্চিত করতে ব্যতিক্রমধর্মী এক আয়োজন করেছে চট্টগ্রামের ফারমিন গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এডভোকেট জিনাত সোহানা চৌধুরী ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো: এমরান। বার্ষিক বনভোজন ও বর্ষবরণ উৎসব নামের এই আয়োজনে নগরীর একটি অভিজাত কনভেনশন হলে মঙ্গলবার দিনভর ফারমিন গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের প্রায় ৩ হাজার পোশাক শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যদের আনন্দ উচ্ছ্বাসে মাতিয়ে রাখেন তারা। এ যেন মালিক-শ্রমিকের অন্যরকম এক মিলনমেলা। দেশাত্ববোধক গানের তালে তাদের হাতে উড়েছে লাল সবুজের জাতীয় পতাকা। সরকারের উন্নয়নের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে এদিন পোশাক শ্রমিকদের হাতে দেখা যায় আওয়ামীলীগ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন চিত্রের লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ড।

নাচ, গান, র‌্যাফেল ড্র, পুরস্কার বিতরণ, খাবারের আয়োজনসহ কোন কিছুরই কমতি ছিল না সেখানে। তবে সবকিছুর মাঝেই ছিল ব্যতিক্রমধর্মী নৌকার প্রচারণা আর ভোটাররা যেন ভোটকেন্দ্রে যায় সেটি নিশ্চিত করা।

ফারমিন গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এডভোকেট জিনাত সোহানা চৌধুরী ও এমডি মো: এমরানের নি:স্বার্থ এই আয়োজন ইতিমধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে দেশজুড়ে। মালিক শ্রমিকের মধ্যে ভেদাভেদ না রেখে একসাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতেও দেখা যায় মনোমুগ্ধকর এই অনুষ্ঠানে।

পোশাক শ্রমিকরা বলছেন, ফারমিন গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এডভোকেট জিনাত সোহানা চৌধুরী ও এমডি মো: এমরান প্রতিটি শ্রমিককে পরিবারের সদস্য হিসেবে মূল্যায়ন করেন। সবসময় তাদের কাছে সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরেন। দেশের উন্নয়নে কিভাবে নিজেদের গর্বিত অংশীদার করা যায় সেই শিক্ষা প্রতিটি শ্রমিকের অন্তরে গেঁথে দিয়েছেন তারা।

মালিক শ্রমিকের এই ভালোবাসা অটুট,অবিচ্ছেদ্য। দেশের পতাকা হাতে নিয়ে মালিক-শ্রমিক একসাথে, এমন চিত্র খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। পোশাক শ্রমিকদের দেশের প্রতি দায়িত্ববোধ সৃষ্টি ও ভোটাধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এমন ভিন্নধর্মী আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান ফারমিন গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এডভোকেট জিনাত সোহানা চৌধুরী।

তিনি শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, নৌকা জিতলেই দেশে পোশাক শিল্প বাঁচবে, চট্রগ্রামের উন্নয়ন এর ভার নিজ হাতে তুলে নেয়ার পর প্রধানমন্ত্রীর একের পর এক মেগা প্রকল্পে বদলে গেছে বন্দনগরী। দেশের স্বার্থে, উন্নয়নের স্বার্থে আপনারা ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিবেন, নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করবেন । উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে নৌকা মার্কার কোন বিকল্প নেই।

ফারমিন গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের এমডি মো: এমরান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করা না হলে দেশে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরী থাকবে না। এ দেশকে ধ্বংস করে দেয়ার জন্য স্বাধীনতা বিরোধীরা ষড়যন্ত্র অব্যহত রেখেছে। তাই ৭ জানুয়ারি ভোটের জোয়ারের মাধ্যমে পরাজিত শক্তিদের বিষ দাঁত ভেঙে দিতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Deshjog TV