শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
Welcome To Our Website...

মাদক সেবন থেকে বিরত রাখতে ছেলেকে শিকলে বাঁধল পরিবার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৩ জুলাই, ২০২২
  • ৭২ বার পঠিত

মাদক সেবন থেকে বিরত রাখতে ছেলেকে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখেছে পরিবারের সদস্যরা। বিষয়টি অনেকটা অমানবিক মনে হলেও ছেলেকে বাড়ির বাইরে যাওয়া এবং মাদক সেবন করা থেকে বিরত রাখতেই তাকে এভাবে বেঁধে রাখতে বাধ্য হয়েছেন বাবা-মা।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যে। এই ঘটনায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। শনিবার (২ জুলাই) রাতে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাঞ্জাবের একটি নাটকীয় ভিডিওতে একজন ব্যক্তিকে খাটের সাথে শিকলে বাঁধা অবস্থায় দেখা গেছে। মাদকাসক্ত ছেলেকে বাড়ির বাইরে যাওয়া এবং মাদক সেবন করা থেকে বিরত রাখতে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখতে বাধ্য হয়েছেন পরিবারের সদস্যরা।

মাদকাসক্ত ওই যুবকের মা এনডিটিভিকে বলেছেন, ‘তার ছেলে প্রতিদিন ৮০০ রুপি মূল্যের মাদক গ্রহণ করতো। গত পাঁচ-ছয় বছর ধরে প্রতিদিনই এভাবেই মাদক নিয়ে আসছিল সে।’

এনডিটিভি বলছে, ২৩ বছর বয়সী এই যুবক পেশায় শ্রমিক এবং পাঞ্জাবের মোগা জেলার বাসিন্দা। তিনি দৈনিক মজুরিতে শ্রমিক হিসাবে কাজ করতেন। ওই যুবকের মা বলেন, ‘দিনমজুর হিসেবে কাজ করে সে (তার ছেলে) যে অর্থ আয় করতো তার সবই মাদকের পেছনে নষ্ট করতো। এমনকি নিজের সব টাকা ব্যয় করার পর সে নিজের বাড়িতে জিনিসপত্র চুরি করতে শুরু করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘কখনও কখনও সে গৃহস্থালির জিনিসপত্র চুরি করে মাদকের জন্য বিক্রি করত। টাকা না পেলে আমাদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিতও করত।’

গত আট দিন ধরে এই যুবককে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে। অবশ্য মাদকাসক্তির জন্য তার চিকিৎসাও চলছে। ছেলের এই নেশায় হতাশ হয়ে পরিবারটি সবকিছুই তালা দিয়ে রাখে।

ওই যুবকের মা বললেন, ‘সে আমাদের অনেক কষ্ট দেয়। আমাদের সবকিছু তালা-চাবির মাধ্যমে নিরাপদ রাখতে হয়। মাঝে মাঝে আমি তার শিকল খুলে দেই যেন পশুখাদ্য আনতে আমাকে সাহায্য করে সে।’

নিজের গ্রামে মাদকের সহজলভ্যতার কথা উল্লেখ করে তিনি সরকারকে এই হুমকির বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আমাদের গ্রামেই মাদক বিক্রি হয়, আমি চাই সরকার কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করুক এবং মাদকের অপব্যবহার বন্ধ করুক।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Deshjog TV