মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:০১ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
Welcome To Our Website...

বিনা টিকেটে ভ্রমণকারী রেলমন্ত্রীর স্ত্রীর আত্মীয়কে জরিমানা, বরখাস্ত হলেন টিটিই!

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৭ মে, ২০২২
  • ৩০৬ বার পঠিত

টিকিট ছাড়াই পাবনা থেকে ঢাকামুখী ট্রেনে উঠে এসি কামরায় বসেছিলেন তিন যাত্রী। ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরিদর্শক (টিটিই) এলে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলামের স্ত্রীর আত্মীয় পরিচয় দিয়েছিলেন তাঁরা। তখন টিটিই তাঁদের বিনা টিকিটে ভ্রমণের জন্য জরিমানাসহ ভাড়া আদায় করেন। এসি কামরা ছাড়তে হয়েছিল তাঁদের। গত বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনার পরপরই টিটিইকে মুঠোফোনে বরখাস্ত করার কথা জানিয়ে দেওয়া হয়। শুক্রবার তিনি আর কাজে যোগ দিতে পারেননি।

বরখাস্ত হওয়া ওই টিটিই হলেন মো. শফিকুল ইসলাম। তিনি পশ্চিম রেলের সদর দপ্তর ঈশ্বরদীতে সংযুক্ত। শফিকুল ইসলাম শুক্রবার প্রথম আলোকে বলেন, ‘বিনা টিকিটে ট্রেনে ভ্রমণ করা ওই তিন যাত্রীর কাছে টিকিট দেখতে চাইলে তাঁরা রেলমন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয় দেন। পরে তাঁদের এসি কামরা থেকে শোভন কামরার টিকিট দেওয়া হয়। এই অপরাধেই আমাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।’

রেলওয়ের একাধিক সূত্রের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রেলমন্ত্রীর স্ত্রীর বাড়ি ঈশ্বরদী উপজেলায়। তাঁর স্ত্রীর তিন ভাগনে বৃহস্পতিবার রাতে ঈশ্বরদী থেকে ঢাকামুখী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনে চড়েন। তাঁরা টিকিট ছাড়াই ট্রেনের এসি কামরায় বসেছিলেন।

টিকিট পরিদর্শক টিকিট চাইলে তাঁরা সুলভ কামরার তিনটি টিকিট দিতে বলেন। একই সঙ্গে এসি কামরা খালি থাকায় সেখানে বসে ভ্রমণের আবদার করেন। কিন্তু টিটিই তাঁদের কাছ থেকে জরিমানা ও ভাড়া বাবদ ১ হাজার ৫০ টাকা নিয়ে এসি কামরা ছাড়তে বলেন। বিষয়টি নিয়ে টিটিইর সঙ্গে ওই তিন যাত্রীর কথা–কাটাকাটি হয়। এরপর তাঁরা এসি কামরা ছেড়ে শোভন কামরাতেই ঢাকায় পৌঁছান। এর কিছুক্ষণ পরেই মুঠোফোনে টিটিইকে সাময়িক বরখাস্তের কথা জানানো হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Deshjog TV