সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
Welcome To Our Website...
শিরোনাম :
আসাদুজ্জামান আসাদের যত ‘অপকর্ম’ শ্রীপুরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাবেক ছাত্র নেতা মিজানুর রহমান মাগুরাবাসিকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কাজী রফিকুল ইসলাম মাগুরাবাসিকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মাগুরা জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আলী আহম্মদ পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মাগুরা জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক সাকিব পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শরিয়ত উল্লাহ বঙ্গবন্ধু ল’টেম্পল কলেজের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল প্রাথমিক শিক্ষকদের অনলাইন বদলি আবেদন শুরু শনিবার চট্টগ্রামে ১০ জুয়াড়ি গ্রেফতার

শিক্ষার্থীরা সড়কে, দোকানিরা মার্কেটের সামনে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২২
  • ৫০৪ বার পঠিত

নীলক্ষেত থেকে চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট পর্যন্ত সড়কবাতি বন্ধ। আর ঢাকা কলেজের মূল ফটক থেকে সায়েন্স ল্যাব মোড় পর্যন্ত সড়কবাতি নিবু নিবু করছে।

সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের পরপর দোকানদারদের একটি অংশ ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটের সামনে এসে দাঁড়ায়। সেখানে পুলিশের সদস্যরা দাঁড়িয়ে আছেন। কিছুক্ষণ পর সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটের দিকে ঢাকা কলেজের মূল গেটের ভেতর থেকে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ইটপাটকেল ছুড়তে ছুড়তে নিউমার্কেট-গাউছিয়া সংযোগ পদচারী-সেতুর দিকে যেতে থাকেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা দুইবার ধাওয়া দেন দোকানদারদের।

ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এ টি এম মইনুল হোসেন রাত সাড়ে আটটার দিকে বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা যখন হল ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা শুনল, তখন তারা বিক্ষুব্ধ হয়। সবাই এসে আমার রুমের সামনে বিক্ষোভ করে। বিষয়টি এমন না যে আমি অবরুদ্ধ ছিলাম। আমি ক্যাম্পাসেই আছি সারা দিন।’

ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ আরও বলেন, মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত আছে হল ছেড়ে দিতে হবে। যেহেতু শিক্ষার্থীরা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যাবে, এ জন্য তারা হলে রাতটা আছে। অনেকের বাড়ি দূরদূরান্তে। এ কারণে আমরা একটু স্লো আছি। কাল সকালের মধ্যে দেখি কী অবস্থা দাঁড়ায়।

শিক্ষার্থীরা আগামীকালের মধ্যেই হল ছাড়বেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ প্রথম আলোকে বলেন, ‘ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের যে সিদ্ধান্ত, সেটা আমরা বাস্তবায়ন করব।’

সাহ্‌রির সময় ঘনিয়ে আসায় দুই পক্ষ যখন রণে ক্ষান্ত দেয়, তখন পুলিশও চলে যায়। কিন্তু রাতের এই সংঘর্ষ সেখানেই শেষ হয়নি। এর জেরে মঙ্গলবার সকাল ১০টার পর ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় জড়ো হন মানববন্ধনের জন্য। এ সময় নিউমার্কেটসহ আশপাশের কয়েকটি মার্কেটের দোকানিরা বেরিয়ে এলে আবার সংঘর্ষ শুরু হয়। দফায় দফায় সংঘর্ষে বন্ধ হয়ে যায় রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ মিরপুর সড়ক। শত শত যানবাহন আটকা পড়ে। এর প্রভাব পড়ে নগরের অন্যান্য এলাকার সড়কে। নিত্য যানজটের এ শহরে যোগ হয় চরম ভোগান্তি। সংঘর্ষ শুরুর তিন ঘণ্টা পর পুলিশ এসে আবার কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। তারপরও থেমে থেমে সংঘর্ষ চলে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs