মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৫৩ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
Welcome To Our Website...

শোক দিবসে লাঠিচার্য করায় পুলিশকে ছাত্রলীগের ‘ধন্যবাদ’

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২
  • ৭০ বার পঠিত

জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশের লাঠিচার্জের ঘটনায় সংবাদ সম্মেলন করেছে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের একাংশ। এ সময় লাঠিচার্জকে সমর্থন জানিয়ে পুলিশকে ধন্যবাদ জানান বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ।

সোমবার (১৫ আগস্ট) রাতে বরগুনা প্রেস ক্লাবের হলরুমে সংবাদ সম্মেলন করে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল কবির রেজা ও সাধারণ সম্পাদক তৌশিকুর রহমান ইমরানসহ তাদের সমর্থিত নেতাকর্মীরা।

সদ্যঘোষিত বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রেজাউল করিম রেজা বলেছেন, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমরা বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সকাল ১০টায় হাসপাতাল সড়ক বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে যাই। সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে শোক র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করি।

জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, র‌্যালি নিয়ে শিল্পকলা একাডেমির সামনে থেকে সড়ক প্রদক্ষিণ করে আসছিলাম সে সময় ‘কে’ বা ‘কারা’ র‌্যালির পেছনে ইট-পাটকেল ছোড়ে এবং পুলিশের গাড়িসহ অসংখ্য মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে। আমরা নির্ধারিত কর্মসূচি শেষ করি। এরপর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখতে পাই, পুলিশের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের কথা উল্লেখ করে খবর প্রচার করা হচ্ছে। তবে আমি বলতে চাই, পুলিশের সঙ্গে ছাত্রলীগের কোনো নেতাকর্মীর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় ছাত্রলীগের কোনো নেতাকর্মীর সম্পৃক্ততা থেকে থাকলেও সে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাস করে না, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে না। আমি জেলা পুলিশকে ধন্যবাদ জানাই, তারা সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিতে সক্ষম হয়েছে। তবে এ ঘটনায় ছাত্রলীগের কোনো নেতাকর্মী সম্পৃক্ত থাকলে কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে ফেরার সময় শিল্পকলা একাডেমির সামনে পৌঁছালে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত গ্রুপের সদস্যরা তাদের ওপর হামলা চালান। এতে দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এছাড়া শিল্পকলা একাডেমি ভবনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের পেটায় পুলিশ। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শহরজুড়ে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে দীর্ঘ আট বছর পর গত ১৭ জুলাই বরগুনা শহরের সিরাজ উদ্দীন টাউন হল মিলানায়তনে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ২৪ জুলাই রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটির অনুমোদন দেন।

এতে জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৩৩ সদস্যের নাম প্রকাশ করা হয়। এরপর থেকেই সদ্য ঘোষিত এ কমিটি প্রত্যাখ্যান করে বরগুনা শহরে পদবঞ্চিতরা প্রতিবাদ জানাতে থাকেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Deshjog TV