বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০২:৫৭ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
Welcome To Our Website...

হাসপাতালে বিয়ে, ১১ দিনের মাথায় মারা গেলেন সেই ফাহমিদা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২১ মার্চ, ২০২২
  • ৪৬১ বার পঠিত

চট্টগ্রামে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিয়ে করে আলোচিত সেই ফাহমিদা কামাল (২৫) অবশেষে মারা গেলেন।

আজ সোমবার (২০ মার্চ) সকালে নগরীর মেডিকেল সেন্টারে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তার পারিবারিক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ফাহমিদা কামালের নানা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক কর্মকর্তা সাইফুদ্দিন সাকী জানান, হাসপাতালে বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর ফাহমিদা হাসপাতাল থেকে বাসায় চলে যেতে অস্থির হয়ে উঠেছিল। তার পীড়াপিড়িতে কয়েকদিন আগে দক্ষিণ বাকলিয়ার বাসায় নেয়া হয়। সেখানে থেকে আবার হাসপাতালে নেয়া হয়েছিল।  সেখানে আজ সকাল ৭টা ২৩ মিনিটে চিকিৎসকরা ফাহমিদাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি জানান, আজ বাদ আছর ফাহমিদার নিজবাড়ি দক্ষিণ বাকলিয়া হাজী আবদুস সালাম মাস্টারের বাড়িতে নামাজে জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

জানা যায়, কক্সবাজারের চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল হকের ছেলে মাহমুদুল হাসান নর্থ সাউথ থেকে এমবিএ আর চট্টগ্রাম নগরীর দক্ষিণ বাকলিয়াতে জন্ম নেয়া ফাহমিদা কামাল আইইউবি থেকে বিবিএ ও এমবিএ শেষ করেছে। শিক্ষাজীবনে দুজনের পরিচয়। স্মার্ট সুন্দরী তরুনী ফাহমিদাকে ভাল লাগতে শুরু করে হাসানের। এর পর আস্তে আস্তে দুজন প্রেমে জড়িয়ে পরে। ভালবাসার মায়াবী বন্ধনে হয়ে উঠে দুজন দুজনার। বিয়ে সংসার কত না মধুর সুখ চোখের কোনায়। কিন্তু হঠাৎ এমন স্বপ্ন সুখের রঙিন উঠোনে ঘনকালো অন্ধকার। সপেদ আকাশ মেঘে ঢাকা বৈরী ঝড়ো হাওয়া সব তছনচ করে দিতে উদ্যত। ফাহমিদার স্বপ্নরাঙা মায়াবী শরীরে বাসা বাধে মরণঘাতী ক্যান্সার।

মরণব্যাধি ধরা পরার পর সাথে সাথে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা এভারকেয়ার পরবর্তীতে ভারতের টাটা মেমোরিয়াল হসপিটালে নেয়া হয়। সেখানে দীর্ঘ একবছর চিকিৎসার পর ডাক্তাররা জানিয়ে দেয়- ফাহমিদার চিকিৎসা আর সম্ভব নয়, এবং তার বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই। পাথর চাপা কষ্ট নিয়ে পরিবারের সদস্যরা ২৫ বছর বয়সী ফাহমিদাকে চট্টগ্রামে নিয়ে এসে মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করাই। সেখানে চলতে থাকে চিকিৎসা। কিন্তু ক্রমাগত ফাহমিদার শাররীক অবস্থায় অবনতি হতে থাকে।

ফাহমিদা ক্যান্সার আক্রান্ত হওয়ার পরও সবকিছু জেনে বুঝে এবং স্ত্রীর সকল চিকিৎসার দায়িত্ব নিজ কাঁধে তুলে নিয়ে বিয়ে করার আগ্রহ প্রেমিক যুবক মাহামুদুল হাসান। তার কঠিন সিদ্ধান্ত, ফাহমিদাকে যদি মরতে হয়, তাহলে তার বুকে মাথা রেখেই মরতে হবে।

অবশেষে উভয় পরিবার সম্মতিতে গত ৯ মার্চ রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল সেন্টার হাসপাতােল বেডে বউ সাজিয়ে ১ টাকা কাবিনে বিয়ের আয়োজন হয় তাদের। কিন্তু বিয়ের ১১ দিনের মাথায় পরপারে চলে গেলেন ফাহমিদা কামাল।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Deshjog TV